শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০

অজ্ঞাতনামা : সাকিনা কাইউম

বিধাতার একি বিরূপ সৃষ্টি!
নামটা শুনলে তোমাদের চোখ কুঁচকে যায়।
তোমাদের বিরক্তমাখা মুখ’খানা দেখে মনে হয়
আমরা যেন কোন ভিন্ন গ্রহের প্রাণী!
আমাদের দেখলে নাকি যাত্রা অশুভ হয়ে যায়,
তোমাদের কাছে আমরা ঘৃণিত কোন পদার্থ,
আমরা যেন নর্দমার কীট-পতঙ্গ,
বঞ্চনা – লাঞ্ছনা যেন আমাদের ভূষণ,
আমরা যেন পাপী – তাপী নিকৃষ্ট প্রাণহীন প্রাণী !

তোমাদের মতো বন, পাহাড় – পর্বত, সমুদ্র
কিছুই দেখার অধিকার নেই আমাদের।
আমাদের ক্ষিদে ও মৌলিক চাহিদা গুলো
তোমাদের কাছে উপাস্য।
একসাথে মিলে থাকা যেন বড়ই দুঃসাধ্য।
মসজিদ, মন্দির, গির্জায় সৃষ্টিকর্তার কাছে
অভিযোগ করারও অধিকার নেই আমাদের।

জানো! তোমরা মানুষ নামক শিক্ষিতরাই
আজ বড় অশিক্ষিত।
তোমরাই কেড়ে নিয়েছ শৈশবের খেলার সাথী,
কেড়ে নিয়েছ আমাদের বিদ্যালয়, মেলা,খেলার মাঠ।
আমাদের সুখ-দুঃখের কথা কখনো জানতে চাওনি।
জেন্ডার পরিচয়ের কোন জায়গাই রাখনি!

তবে, সারাটা জীবন “হিজড়া ” নামে ডাকলেও
মৃত্যুর পর নাম হয়ে যায় শাম্মী,টুম্পা বা জোনাকি।
অথবা অজ্ঞাতনামা বেওয়ারিস লাশ হিসেবে
পেতে হয় কবরের এক’মুঠো মাটি।

তোমাদের কাছে আমাদের একটাই প্রশ্ন –
মানুষকে “মানুষ” হিসেবে পরিচয় দেওয়া কি খুব কষ্টকর?
কেন আমরা মানুষ হয়ে বাঁচতে পারিনা
তোমাদের এই কুলষিত সমাজে! বলতে পারো?
আমরাও যে বাঁচতে চাই, মানুষের মতো মানুষ হয়ে।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত