শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

অপবাদ সইতে না পেরে বৃদ্ধার আত্মহত্যা

মানিকগঞ্জের ঘিওরে ছেলের দেওয়া চুরির অপবাদ সহ্য করতে না পেরে মায়ের আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়নের করজনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ রাহেলা খাতুনের (৬২) লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, করজনা গ্রামের মো. অহেদ আলী খানের স্ত্রী রাহেলা খাতুন। তার চার ছেলে ও এক মেয়ে। বুধবার রাতে রাহেলা খাতুন মেজো ছেলে বাবু খানের বাড়িতে খাবার খেয়ে মেয়ের বাড়িতে ঘুমাতে যান। কিছুক্ষণ পর বাবু খান তার মায়ের কাছে এসে বলে, ‘তুমি আমার এক হাজার টাকা চুরি করেছ।’ এ নিয়ে মা-ছেলের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশে একটি গাছে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।

স্থানীয়দের ধারণা, ছেলের দেওয়া চুরির অপবাদ সইতে না পেরে রাতের কোনো এক সময় আত্মহত্যা করেছেন রাহেলা খাতুন।

রাহেলার নাতি আরিফুল ইসলাম জানান, তার মেজো কাকা দাদিকে এক হাজার টাকা চুরির অপবাদ দেন। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এ কারণে তার দাদি আত্মহত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাবু খান বলেন, আমি শুধু মাকে বলেছি এক হাজার টাকা এনেছ কেন। এ নিয়ে মায়ের সঙ্গে আমার সামান্য কথাকাটাকাটি হয়। এর বেশি কিছু আমি বলিনি। সকালে খবর পাই মা আত্মহত্যা করেছেন।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত