বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১

অবহেলার আর্তনাদ ।। রুদ্রনীল রাজিব

নিস্তব্ধ ছন্দোবদ্ধ নিশুতি রাত
ক্রন্দনে ভরে যায় বুকফাঁটা অনাদৃত প্রলাপ।
মসৃণ ভরা হৃদয়ে মুছে না কেউ অশ্রুধার
কেবল উপহাসের ধুলাবালি জমে
গড়া এক বুক পাহাড়।
যদি এই সমাজ সংসার ভুবনে সকলের তরে সকল
শুদ্ধ ভালবাসার মায়াজালে আবদ্ধ।
কেন মোরা তার সন্নিকট যেতে হবো শ্বাসরুদ্ধ?

মাঠে, ঘাটে, রাস্তার ফুটপাতে ধুকে ধুকে মরছে
জাতির সহস্র সন্তান আজ কাঙাল হয়ে আর্তনাদে
ক্ষুধিত প্রাণে, কতো মানুষের ভীড়ে তৃষ্ণার্ত বদনে।
শুধুই অবিরাম দেখি দুনয়নে
আসে যায় গাড়ি, যতো পথচারী-
কি ভীষণ ব্যস্ততায় মগ্ন সবে !
একবারও ফিরে তাকানোর সময় হয় না তাদের।

অর্থের আট্টালিকায় মুছে গেছে কাতরতা
ক্লান্তির অবয়ব রঙ্গিন চশমার অন্তরালে,
চাকচিক্য প্রতিবেশে ঝুলকালি সেজে আছি
সে সকল চোখে।
ফুটপাতের মুঠিভরা ধূলিকণা যাদের সম্বল
অভিশপ্ত সে জীবন তাদের সমাজে
অনাদর, অবিচারে করে বিতাড়িত।

বিশাল এক দুনিয়া-
ছিন্নমূলের হিসেব কষি অত্যাচারের তুফানে?
মুখের খাবার না চাই
নোংরা পচা কুড়িয়ে কায়ক্লেশ মিটাই।
তবু কেন শূন্যতার ঘ্রাণেও অভিশাপে থাকে অবিচল
তাদের হৃদয়স্থল,
আমরা কি মানুষ নাকি পথের কাঁটা?

এ দেহে প্রাণ আছে বলে আছে নিঃশ্বাস
আত্মা আছে বলে
একদিন এ আত্মার হবে আত্মনাশ !
সোনালী আশেঁ জীবন বসবাসে শুধু নেই দীর্ঘশ্বাস।
বিষাক্ত কাঁটায় আর কতো সইবো নিপীড়ন-
ইরিধানের পোকায় পোকায় ঘৃণা ভরা এ জীবন।
কেন বুঝে না সে সমাজ
দুর্বিপাক সে তো ভাগ্যের লিখন !


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত