শনিবার, ৩০ মে ২০২০

আমার ছেলেবেলা

ইফফাত জাহান পারু

আমার ছেলেবেলা কচুরিপানার ফুলের সাথে মিশে আছে।

কচুরিপানার ফুল আমার সাথে কথা বলতো।
আমার ছেলেবেলা নদীর স্বচ্ছজলে খেলা করতো।
নদীর স্রোত জানে আমার ছেলেবেলা কত দূরন্তপনায় কেটেছে।
দূরের পাহাড় আমাকে দেখেছে। আমাকে কাছে ডেকেছে।
আমি দূর থেকে পাহাড়কে বন্ধু বানিয়েছি।
আমার ছেলেবেলা কেটেছে নিশিন্দা পাতার সাথে গল্প করে।
স্বর্ণলতা জানে আমি তাদের কত আপন।
নিপুণ গৃহিণীর মত আমি রান্না করেছি কখনো কখনো।
একজোড়া শালিক পাখি জানে,
আমি তাদের কত কাছের মানুষ।
একটি শালিক পাখি জানে আমি তাকে একা দেখলেই ছটফট করেছি অস্তিরতায়।
নদীরপাড়ের কাশফুল জানে, আমি তাদের স্পর্শ করেছি কোমলতায়।

হেমন্তের পাকা ধানের গন্ধ আমাকে আকুল করেছে আমার ছেলেবেলায়।
কৃষক যখন গ্রীষ্মের গরমে পাকা ধানের আঁটি বেঁধে নিয়ে গেছে সেই সরু মাটির আলপথ দিয়ে,
আমি কৃষকের মুখের হাসি দেখেছি আমার ছেলেবেলায়।
চৈত্র মাসে মেলা হত আমার ছেলেবেলায়।
সেই মেলার পাতার বাঁশি আমাকে আজও ডাকে।
সেই মাটির হাড়ি, কলস।

শাপলার বিলে শাপলা ফুল নিয়ে খেলা করেছি
আমার রঙিন ছেলেবেলায়।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত