সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০

ইউপি চেয়ারম্যানের নাম ভাঙিয়ে ইয়াবা কারবার

‘আমি একজন ইউপি চেয়ারম্যান। সমাজে আমার মানসম্মান আছে। ব্যাগে এমন কিছু নেই, যে জন্য আপনারা তল্লাশি করবেন। সার্চ ওয়ারেন্ট আছে? সার্চ ওয়ারেন্ট ছাড়া একজন চেয়ারম্যানকে এভাবে হয়রানি করতে পারেন না। আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে এসেছি। কেউ তল্লাশি করা দেখে ফেললে মানসম্মান যাবে। আমাকে যেতে দিন।’
মাদকবিরোধী আভিযানিক দলের কাছে এভাবে চেয়ারম্যান পরিচয় দিয়ে সটকে পড়ার চেষ্টা করেছিলেন ৬২ বছরের নুরুল হক। কিন্তু নাছোড়বান্দা আভিযানিক দলের লোকজন। কারণ তারা নিশ্চিত- এই ব্যক্তির ব্যাগে আছে ইয়াবার চালান। পাতলা কাপড়ের শপিং ব্যাগ তল্লাশি করামাত্র বেরিয়ে আসে চার হাজার ইয়াবা। তার সঙ্গে থাকা দুই সহযোগীর কাছে পাওয়া যায় আরও ছয় হাজার।
গত মঙ্গলবার রাজধানীর দক্ষিণ বনশ্রী মসজিদ মার্কেটের সামনে এই ঘটনা ঘটে। অভিযানটি চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা মহানগর উপ-অঞ্চলের মতিঝিল সার্কেল।
ইয়াবা কারবারি নুরুল হকের বাড়ি কাশিনগর ইউনিয়নের নিলক্ষ্মী বিষ্ণপুর গ্রামে। তবে আদৌ ইউপি চেয়ারম্যান নন তিনি। অবশ্য ২০০৩ সালে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানার কাশিনগর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন। এর পর থেকে এলাকার বাইরে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড আড়াল করতে নিজেকে সেখানকার ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচয় দিতেন তিনি। মঙ্গলবারও একইভাবে পার পাওয়ার চেষ্টা করেন। প্রথমে নিজেকে চেয়ারম্যান দাবি করেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদে বলেন, কাশিনগর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান। কিন্তু এটিও ভুয়া।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত