মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

উপজেলা নির্বাচন : সরব আওয়ামী লীগ, নিরব বিএনপি

জাকির হোসেন, সুনামগঞ্জ

মার্চ মাসে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এ খবর পেয়ে সুনামগঞ্জের ১১টি উপজেলার সম্ভাব্য চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নড়েচড়ে বসেছেন। নিজেদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে নির্বাচনী পরিকল্পনা বৈঠক করছেন অনেক সম্ভাব্য প্রার্থী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইতিমধ্যে প্রচারণাও শুরু করে দিয়েছেন তারা। তবে, উপজেলা নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদেরই তৎপরতা বেশি লক্ষ করা যাচ্ছে। সে তুলনায় বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীদের তৎপরতা চোখে পড়ছে না।
জেলার হাওর অধ্যুসিত বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে আলোচনায় আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ মানিক, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বর্মন, ধনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম তালুকদার, জেলা যুবলীগের সদস্য ও ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রনজিত চৌধুরী রাজন, বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোলেমান তালুকদার।


জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য রনজিত চৌধুরী রাজন। ছাত্র রাজনীতি থেকে বেড়ে উঠা রনজিত শহরের পরিচিত মুখ। বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে বর্তমানে তিনি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এবার তিনি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়তে চান। সেই লক্ষ্যে ইতিমধ্যে তিনি প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। তিনি ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগ’র সাথে যুক্ত হয়েছেন। রনজিৎ চৌধুরী রাজন, সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ এর সাবেক সাধারন সম্পাদক,জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগরে বর্তমান যুগ্ন সাধারন সম্পাদক। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়স চেয়েও পায়নি। তবুও এলাকার জনগনের দাবির প্রেক্ষিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করেন। নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থীকে বিপুল ভোটে হারিয়ে তিনি জয়ি হন। গত আড়াই বছরে পুরো বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে ইঠেন রাজন।

রনজিত চৌধুরী ২০০০ সালে ভোটের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন,২০০১ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জাতাম জোট সরকারের আমলে অপারেশন ক্লিনহার্ট সময় সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ’র সাধারন সম্পাদক থাকাবস্থায় ছাত্রদলের নির্যাতন অত্যাচার উপক্ষো করেও ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের উজ্জিবিত করে রাখেন তিনি। বিশেষ করে ২০১৭ সালে হাওরের ফসল তলিয়ে যাওয়ার পর থেকে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে গ্রামে ছুটে গেছেন। তার সাধ্যমত মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন।


রঞ্জিত চৌধুরী রাজন, বিএনপি জামাত সরকারের আমলে ছাত্রলীগ করা অবস্থায় অনেক নিপীড়ন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। ছাত্রদল ও শিবিরের ধাওয়ায় বাড়ি ছাড়া থেকেছেন দিনের পর দিন। অনেক ত্যাগ স্বিকার করেছেন তার রাজনৈতিক জীবনে।
রঞ্জিত চৌধুরী রাজন বলেন, আমি শুধু আমার ইউনিয়ন না আমি পুরো উপজেলার মানুষের সেবা করতে চাই বলেই আমি উপজেলা নির্বাচন করতে চাই। তিনি আশাবাদি নেতৃস্থানীয়রা তার কর্মকান্ড দৃশ্যমান দেখছেন। ফলে অবশ্যই তাকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দিবেন।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বেনজির আহমদ মনিক,দীর্ঘদীন ধরেই রাজনীতির সাথে জড়িত। একজন পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে জেলা ও উপজেলায় রয়েছে তার সুনাম। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি ইতিমধ্যে উপজেলার প্রতিটি গ্রামে গ্রামে উঠান বৈঠক করে যাচ্ছেন। ভোটারদের দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রæতি। দৈনিক ভোরের কাগজ কে মানিক বলেন,আমি প্রচার প্রচারনা করছি। ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। তবে যদি দলীয় মনোনয়ন পাই তবেই আমি নির্বাচনে যাবো।
দিলীপ বর্মন বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদক। তিনি পুরো উপজেলায় নিরাত চষে বেড়াচ্ছেন। কথা বলছেন ভোটারদের সাথে। উপজেলার বিভিন্ন হাঠ বাজারে মতবিনিময়সভা সহ উঠান বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি আওয়ামী রাজনীতির সাথে সক্রিয় ভুমিকা পালন করায় বর্তমানে উপজেলা আওয়মীলীগ সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করছেন।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ’র সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও ধনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম তালুকদা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে লড়ার জন্য বর্তমানে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকে নির্বাচন করে বিপূল ভোটে তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি বলেন,বর্তমানে বিএনপির উপজেলা চেয়ারম্যান থাকায় সুষম বণ্ঠন হচ্ছে বলে অভিযোগ তার। তিনি বলেন, উপজেলায় অনেক সমস্যা রয়েছে। এর মধ্যৈ হাওরের ফসলরক্ষা একটা বিশাল সমস্যা তিনি হাওরের ফসলরক্ষায় নিশ্চিন্তে যেনো কৃষকরা ধান ঘরে তুলতে পারেন এমনভাবে কাজ করবেন উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিপূল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন এজন্য তিনি উপজেলা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদি।
অন্যদিকে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপির প্রার্থী কোন সাড়াশব্দ নাই। এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি দেওয়ান জয়নুল জাকেরীন জানান,দল থেকে যদি নির্বাচনে না আসে তাহলে আমরা নির্বাচন করবো না। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় মোট ভোটার ১ লক্ষ ১ হাজার ৫শ ৩০ জন।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত