রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

একটি বুর্জোয়া রোগেই আমি মারা যাব

কারতেজ হাঙ্গেরিয় ঔপন্যাসিক যার কথাসাহিত্যে চিত্রিত হয়েছে নাৎসি বাহিনীর মৃত্যুশিবিরে বন্দী হিসেবে কাটানো তার অসহনীয় ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। দীর্ঘ অসুস্থতার পর ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে নিজ বাসভবনে ৮৬ বছর বয়সে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় একজন ইহুদী হিসেবে নাৎসি দ্বারা তাড়িত হওয়া, পরবর্তীতে একজন লেখক হিসেবে দমনমূলক হাঙ্গেরিয় কমিউনিস্ট শাসনের অধীনে বাস, সর্বোপরি বিংশ শতকের সবচেয়ে তীব্র যাতনার স্মৃতি পরোক্ষ ও প্রত্যক্ষরূপে অথচ অতি সূক্ষ্মভাবে তাঁর গদ্যে বর্ণিত হয়েছে।
সুইডিশ নোবেল একাডেমীর মতে, তাঁর ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা ও লেখনী ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বর ও নির্বিচার সময়কে ধারন করেছিল আর এজন্যই তিনি নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কালে ১৪ বছর বয়সে কারতেজ অন্যান্য হাঙ্গেরিয় ইহুদীদের সাথে আউসভিস বন্দীশিবিরে আটক ছিলেন। সেখান থেকে তাদেরকে বাচেনওয়াল্ডে নিয়ে যাওয়া হয়। আউসভিস, বাচেনওয়াল্ড এবং জিতেজের বন্দিশিবিরের ঘটনাবলীকে কেন্দ্র করে তিনি রচনা করেন তাঁর আলোচিত উপন্যাস ফেটলেসনেস
ইতিহাসের তিক্ততাপূর্ণ অভিজ্ঞতালব্ধ জীবনযাত্রাকে কথাসাহিত্যের মাধ্যমে তুলে আনায় ২০০২ সালে তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার জয় করেন ।
ফেটলেসনেস ছাড়াও তাঁর উল্লেখযোগ্য রচনার মধ্যে রয়েছে, কাদ্দিস ফর চাইল্ড নট বর্ন, কাদ্দিস ফর এন আনবর্ন চাইল্ড, ফিয়াসকো, লিকুইডেশন, দ্য হলোকাস্ট এজ কালচার, ডিটেকটিভ স্টোরি ইত্যাদি।
তাঁর কাজগুলো বারবার ফিরে গেছে এডলফ ইটলারের তৃতীয় রাইখের সময়কালে। ঘুরে ফিরে বর্ণিত হয়েছে সেই সময়কার অভিজ্ঞতা আর স্মৃতি। জার্মান অধিকৃত পোল্যান্ড শিবির আউসভিসের কথা যেখানে এক মিলিয়নের অধিক ইহুদী আর অন্যান্য ভুক্তভোগীদের হত্যা করা হয়েছে।
মৃত্যুর আগে তিনি দীর্ঘদিন ধরে পারকিনসন রোগে ভুগছিলেন। কাকতালীয়ভাবে ২০১৩ সালে ‘প্যারিস রিভিউ’ পত্রিকায় দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইমরে কারতেজ নিজের মৃত্যু সম্পর্কে বলেছিলেন, “ হ্যাঁ, আমি মেনে নিয়েছি যদিও আমি নিশ্চিত নই অসুস্থতা অথবা আমার কাজ কোনটা এখনই আমার মৃত্যুর কারন হবে। ঠিক আছে, আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি ততদূর যাওয়ার যতটুকু আমার পক্ষে সম্ভব। অবশ্যই এটা ঠিক যে, ইতিহাসের সাথে আমার যে বোঝাপড়া অন্তত এই কারনে ইতিহাসের কোন আক্রমনে আমি এখনও আমি মারা যাইনি। তবে আমার মনে হচ্ছে, ইতিহাসের বদলে একটি বুর্জোয়া রোগে আমার মৃত্যু হবে। পারকিনসনের মতো ভীষণ রকম একটি বুর্জোয়া রোগেই আমি মারা যাব”।

 


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত