শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১

কীভাবে গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করা যায়?

Adsense বিজ্ঞাপন থেকে Google যত টাকা আয় করে তার ৬৮ ভাগ টাকাই দিয়ে থাকে পাবলিশারদের এবং বাকী ৩২ ভাগ টাকা নিজেরা ভোগ করে। কাজেই বুঝতে পারছেন আপনি কী পরিমানে টাকা আয় করতে পারবেন। Google Adsense থেকে টাকা আয় করার জন্য যা কিছু প্রয়োজন তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয় নিম্নে সংক্ষেপে দেওয়া হলো –

একটি ব্লগ/ওয়েবসাইট

আপনার লেখালেখির অভ্যাস থাকলে একটি ব্লগ তৈরি করে ব্লগে আর্টিকেল শেয়ার করে খুব সহজে Google AdSense হতে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।
আপনি যখন গুগল সার্চ ইঞ্জিনে কোন কীওয়ার্ড লিখে কিছু সার্চ করেন এবং সার্চ রেজাল্ট হতে একটি ব্লগে ভিজিট করেন তখন ঐ সমস্ত ব্লগে যে সমস্ত বিজ্ঞাপন দেখতে পান, সেগুলো বেশীরভাগ হচ্ছে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন। ভালোমানের আর্টিকেল রাইটাররা তাদের ব্লগে শুধুমাত্র কন্টেন্ট শেয়ার করে AdSense হতে মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছে। আমি নিজেও আমার ব্লগে এডসেন্স বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে মাসে অল্পকিছূ টাকা আয় করছি। কাজেই ব্লগিং করে অনলাইন হতে দীর্ঘদিন যাবত টাকা ইনকাম করতে পারেন।

ভালোমানের কনটেন্ট

আমি সবসময় একটা কথাই বলে থাকি যে, আপনি যদি একজন ভালোমানের ব্লগার হতে চান তাহলে অবশ্যই ব্লগে মানসম্মত ও নিত্য নতুন আর্টিকেল পাবলিশ করেন। আপনি যে বিষয়টি ভালো জানেন ও বুঝেন সেই বিষয় নিয়ে কারও কাছ থেকে কপি পেষ্ট করা নয় এমন কন্টেন্ট পাবলিশ করেন। কারণ Google Adsense সব সময়ই নিত্য নতুন আর্টিকেল পাগলের মত পছন্দ করে।
এক সময় ছিল যখন গুগল এডসেন্স বাংলা ভাষা সাপোর্ট করত না কিন্তু ২০১৭ সাল হতে এডসেন্স বাংলা ভাষা সাপোর্ট করছে এবং বাংলা কন্টেন্ট যুক্ত ব্লগে এডসেন্স অনুমোদ দিচ্ছে। কাজেই এডসেন্স থেকে টাকা উপার্জন করতে চাইলে এখন বাংলা কন্টেন্ট নিয়েও কাজ করতে পারেন।

ভিজিটর

আপনি যা কিছুই নিয়ে ব্লগিং করেন না কেন আপনার টার্গেট হচ্ছে ব্লগে ভিজিটর পাওয়া। আপনি যখন ব্লগে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর পাবেন তখনই আপনার এত পরিশ্রম সফল হবে। কারণ ভিজিটরহীন ব্লগ এর কোন মানেই হয় না। তাছাড়া Google Adsense হতে কি পরিমানে টাকা পাবেন তা নির্ভর করে করে ভিজিটরের উপর অর্থাৎ আপনার ব্লগে যত বেশী ভিজিটর আসবে আপনার আয়ও তত বাড়তে থাকবে।

গুগল এডসেন্স থেকে কত টাকা আয় করা যায়?

এই প্রশ্নের জবাবে আমি বলবো যে, AdSense থেকে ১০০ ভাগ জীবন ধারন করা বা পরিবার চালিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। কারণ আপনি এখান থেকে সবসময় ভালোমানের টাকা ইনকাম করতে সক্ষম হবেন তার কোন নিশ্চয়তা নেই। দেখা যাবে হয়তো আপনি কোন মাসে বেশ কিছু টাকা আয় করতে সক্ষম হয়েছেন, আবার কোন মাসে সামান্য কিছু টাকা আয় করতে হিমশিম খাচ্ছেন।
তবে এটা নিশ্চিতভাবে বলতে পারি আপনার ব্লগটি যদি ভালোমানের হয়, ভাল কোয়ালিটির কন্টেন্ট থাকে এবং প্রচুর পরিমানে ভিজিটর থাকে তাহলে এখান থেকে প্রতিনিয়তই একটা Smart Amount আয় করতে সক্ষম হবেন। যা দ্বারা আপনার পরিবার পরিচালনা করতে সক্ষম না হলেও অনেকাংশেই সহায়তা করবে।

গুগল এডসেন্স এর চিঠি কিভাবে হাতে পাবেন?

সাধারণত এডসেন্সে যখন আপনার ইনকাম ১০ ডলার পূর্ণ হবে তখন গুগল এডসেন্স টিম আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও গুগল এডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করে নেওয়ার জন্য বলবে। আপনি যখন এডসেন্স এর সেটিংস অপশন হতে আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও এডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করার জন্য আবেদন করবেন তখন গুগল আপনার স্থানীয় ঠিকানার পোস্ট অফিসে একটি চিঠি পাঠাবে।
সেই চিঠিতে গুগল এডসেন্স এর অফিসিয়াল সীলমোহর করা থাকবে। এডসেন্স এর চিঠি খোলার পর আপনি একটি পিন নম্বর দেখতে পাবেন। উক্ত পিন নম্বরটি ব্যবহার করে আপনার ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট ও এডসেন্স একাউন্ট ভেরিফিকেশন করে নিতে পারবেন।

এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি

গুগল এডসেন্সে যখন আপনার ইনকাম ১০০ ডলার পূর্ণ হবে তখন আপনি সেই টাকা উত্তোলন করার অপশন পাবেন। গুগল এডসেন্স একাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলনের আবেদন করার পর গুগল আপনার টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠিয়ে দেবে। বাংলাদেশ ব্যাংক সেই টাকা আপনার কাঙ্খিত ভেরিফাই করা ব্যাংক একাউন্টে পাঠাবে। ভারতের ক্ষেত্রে সম্ভবত সেই রুপি SBI এর মাধ্যমে কাঙ্খিত ব্যাংকে পৌছে দেয়।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত