শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে স্কুলছাত্রীকে এনে ধর্ষণ

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) লাইব্রেরিতে এক স্কুলছাত্রীকে এনে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে খুবির চারুকলা অনুষদের এক ছাত্রের বিরুদ্ধে। এ ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে খুবি কর্তৃপক্ষ। ওই ছাত্রীর লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে চারুকলা অনুষদের প্রিন্ট মেকিং ডিসিপ্লিনে অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্র পাপ্পু কুমার মণ্ডলকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। ওই ছাত্রকে তার সহপাঠীরা মুখে কালি লাগিয়ে ও জুতার মালা পরিয়ে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দিয়েছেন।

গত ৩ জুলাই ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে। তবে এত দিন ঘটনাটি বাইরে জানাজানি হয়নি। সোমবার ফেসবুকে ধর্ষণকারী ছাত্রের জুতার মালা পরানো ছবি পোস্ট করা হলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, ওই দিন খুবির চারুকলা অনুষদে চিত্রকলা প্রদর্শনী ছিল। পাপ্পু ওই দিন তার পরিচিত ওই ছাত্রীকে প্রদর্শনী দেখানোর কথা বলে ক্যাম্পাসে ডেকে নেয়। এরপর তাকে খাবারের সঙ্গে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে চারুকলার লাইব্রেরিতে নিয়ে ধর্ষণ করে। মেয়েটি লাইব্রেরির সিঁড়িতে কান্নাকাটি করার সময় রাত সাড়ে ১২টার দিকে দারোয়ান তাকে দেখতে পান। ওই ছাত্রী খুলনার একটি গার্লস স্কুলে লেখাপড়া করেন।

কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, পাপ্পু ওই মেয়েটিকে পড়াত। তবে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ঘটনার পর গত ১৫ জুলাই পাপ্পু বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলে ছাত্ররা তাকে মুখে কালি লাগিয়ে ও গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেন।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

error: Content is protected !!