বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১

খোলার জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনেক আগে থেকেই প্রস্তুত

মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ১৪ মাস পার করছে বাংলাদেশ। এ সময়ে সরকার যেমন অফিস-আদালত বন্ধ করে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে তেমনি আবার সেই ছুটি বাতিলও হয়েছে। সর্বাত্মক লকডাউনের ঘোষণা দিয়ে মানুষের চলাচলে মুভমেন্ট পাস নিতে হয়েছে। আবার পাস ছাড়াই মানুষদের অবাধে চলাচল করতেও দেখা গেছে। দীর্ঘ এ সময়ে রেস্তোরা বন্ধ হয়েছে, আবার খোলাও হয়েছে। গণপরিবহন বন্ধ করে সেটিও ছাড়া হয়েছে।

সর্বশেষ কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেই সোমবার চালু হয়েছে দূরপাল্লার বাস। তবে দীর্ঘ সময় ধরে বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

বিশ্বস্ত একটি সূত্র জানায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ব্যাপারে কাজ শুরু করেছে। শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ সংক্রান্ত গাইডলাইন পাঠিয়েছে।

এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার উপযোগী করে আমরা তৈরি করছি। যাতে সরকার এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিলেই আমরা খুলে দিতে পারি।’

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম এ বিষয়ে বলেন, ‘স্কুল খোলার জন্য সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনেক আগে থেকেই প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তবে কবে স্কুল খুলবে সেই সিদ্ধান্ত জানাবে সরকার।’


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত