রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

জাহিদকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

সুনামগঞ্জের সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী জাহিদ প্যারালাইসিস (Transverse Myelitis Spinal spread) এ আক্রান্ত। তার নাভি হতে পা পর্যন্ত অবশ হয়ে আছে। যথাযথ চিকিৎসার অভাবে তার জীবন এখন বিপন্ন হবার পথে। তবে সকলের সহযোগিতা পেলে সে হয়তো স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে।

জানা যায়, ২০১৫ সালের মে মাসের ২৭ তারিখে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে জাহিদ স্থানীয় ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়। পরবর্তীতে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকবৃন্দ তার শরীর অবশ পরীক্ষা করে সিলেটে ওসমানি মেডিকেলে স্থানান্তরের পরামর্শ দেন।

পরবর্তীতে সেখানকার  চিকিৎসকরা ন্যাশনাল নিউরোসায়েন্সে ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালে স্থানান্তর করার পরামর্শ দেন। যথোপযোগী চিকিৎসার জন্য সেখানের ডাক্তাররা জাহিদকে দেশের বাইরে চেন্নাইয়ের সিএমসিতে চিকিৎসা গ্রহণ করতে বলেন।

জাহিদের পারিবারিক অবস্থা অস্বচ্ছল হওয়ায় (বাবা দিনমজুর, মা গৃহিণী) প্রথমে সেখানে যাওয়া সম্ভব হয়ে উঠেনি। কিন্তু জেলা প্রশাসন, উপজেলা ও জেলা সমাজসেবা অফিস এবং মহান সমাজসেবী ব্যক্তিদের অর্থায়নে ২০১৬ সনের সেপ্টেম্বর হতে ২০১৭ সনের জানুয়ারি মাস অবধি চিকিৎসা গ্রহণ করলে তার অবস্থার সামান্য উন্নতি লক্ষ করা যায়। সেখানের চিকিৎসকবৃন্দ ৬ মাস অন্তর থেরাপি গ্রহণের মাধ্যমে আরোগ্যের ব্যাপারে আশাবাদী ছিলেন। কিন্তু অর্থাভাবে পরবর্তীতে জাহিদকে নিয়ে পুনরায় সিএমসিতে যাওয়া হয়নি।

বর্তমানে জাহিদের নাভি হতে পা পর্যন্ত সম্পূর্ণ অবশ হয়ে আছে, যথাযথ চিকিৎসা গ্রহণ না করলে তার সারা শরীর অবশ হয়ে জীবনহানি ঘটতে পারে। জাহিদকে আবার আমাদের মাঝে ফিরিয়ে আনতে সকলের সাহায্য প্রয়োজন।

জাহিদ পড়াশুনা করে মানুষের মত মানুষ হতে চায়, দেশের সমাজের উন্নয়ন চায়। আমাদের মাঝে দুরন্ত জাহিদকে আবার হাসিখুশি চেহারায় দেখতে চাইলে, একটি জীবনকে বাঁচিয়ে তার ও তার পরিবারের হাসি ফোটাতে সবাই এগিয়ে আসুন।

বিকাশ: 01615825060 (Dipu)


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত