বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

জীবনানন্দ পুরস্কার পেলেন জুয়েল মাজহার ও আবদুল মান্নান সরকার

বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে কবি জুয়েল মাজহার ও কথাসাহিত্যিক আবদুল মান্নান সরকারকে ‘জীবনানন্দ পুরস্কার-২০১৯’ দেওয়া হয়েছে। শনিবার বরিশাল নগরীর রায় রোডে খেয়ালী গ্রুপ থিয়েটারে তাদের হাতে পুরস্কারের অর্থমূল্য ও সম্মাননাপত্র তুলে দেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন।

এ সময় তিনি বলেন, ‘জীবনানন্দ পুরস্কার-২০১৯’-এ যে দুই লেখককে পুরস্কৃত করা হয়েছে, তারা তাদের নিমগ্ন সাধনায় নিজের জায়গাকে উজ্জ্বল করার চেষ্টা করেছেন। অনবরত নিজের শ্রম ও মেধা দিয়েছেন এবং সৃজনশীলতার বিকাশের জন্য নিজের জায়গাটার পরিচর্যা করেছেন। আর যারা এ আয়োজন করেছেন তারা সামগ্রিকভাবে কবি জীবনানন্দ দাশকে শুধু স্মরণ করা নয়, তারা এখানে নিজেদের যুক্ত করে সাহিত্যের বলয় তৈরি করেছেন। যে বলয়ের ভেতর দিয়ে তৈরি হবে আমাদের আগামী প্রজন্ম। 

আর কবি জুয়েল মাজহার বলেন, আমি যখন ভবঘুরে জীবন কাটিয়েছি, তখন যে কবি আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন সঙ্গ দিয়েছেন, তিনি জীবনানন্দ দাশ। আর এটি কাকতালীয় ব্যাপার, আজ জীবনানন্দ পুরস্কার লাভ করেছি আমি।

সাহিত্য সংগঠন ‘আড্ডা ধানসিড়ি’র আয়োজনে এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কবি শামীম রেজা। বিশেষ অতিথি ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক নিখিলেশ রায়। আরও উপস্থিত ছিলেন- বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান লেখক ড. মুহম্মদ মুহসিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের অধ্যাপক মোস্তফা তারিকুল আহসান, কবি দীপঙ্কর চক্রবর্তী, আসমা চৌধুরী, পশ্চিমবঙ্গের কবি সন্তোষ সিংহ, কবি গাজী লতিফ, চঞ্চল বাশার, হিজল জোবায়ের, মিছিল খন্দকার প্রমুখ। 


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত