বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঢাবির লাইব্রেরিতে বসার সিট না পেয়ে মানববন্ধন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে বসার সিট না পেয়ে গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে এই মানববন্ধন করে তারা। এ সময় শিক্ষার্থীরা যুগোপযোগী ও বহুতল (সম্প্রসারিত) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার নির্মাণসহ ৪ দফা দাবি জানান।

দাবি সমূহের মধ্যে আছে, সমস্যার আশু সমাধানকল্পে বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কোন ভবনকে অস্থায়ী লাইব্রেরি হিসাবে ঘোষণা করা, গ্রন্থাগারে বহিরাগতদের প্রবেশ বন্ধ করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা এবং গ্রন্থাগারে জরুরি বহির্গমন পথের ব্যবস্থা করা প্রভৃতি।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের আসন সংখ্যা শিক্ষার্থীদের তুলনায় কম। গ্রন্থাগারে বসার সিট পাবার জন্য প্রতিদিন খুব সকালে আসতে হয়। কিন্তু কোন কোন দিন তাড়াতাড়ি এসেও গ্রন্থাগারে বসার সিট পাওয়া যায়না। সকাল আটটার দিকে লাইব্রেরির প্রবেশপথ খুললেও বুধবার সকাল ৭টার আগে এসেও অনেকে সিট পায়নি। সিট না পেয়ে বিক্ষুদ্ধ এসব শিক্ষার্থীই পরে মানববন্ধন করে।

এ সময় তারা ‘লাইব্রেরিতে সিট নাই, ডাকসু’র দরকার নাই’, ‘এত এত ভবন হয়, লাইব্রেরি কেন নয়!’, ‘২০ তলা ভবন হয়, লাইব্রেরিতে সিট নাই’, ‘বহিরাগত মুক্ত লাইব্রেরি চাই’, ‘ঢাবি তুমি ঘুমাও নাকি?’, ‘লাইব্রেরিতে সিট নাই! ডাকসু ঘুমায় কেন?’, ‘পড়তে এসে লাইন কেন?’ প্রভৃতি লেখা সংবলিত প্ল্যাকার্ড বহন করেন।

মানববন্ধনে ফারসি ভাষা এবং সাহিত্য বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সায়ফুল ইসলাম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক কিছুর পরিবর্তন হয়েছে, শুধু পরিবর্তন হয়নি লাইব্রেরি। ফজর নামাজের আগে এসেও আমাদের অনেক শিক্ষার্থী দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে কাক্সিক্ষত আসন নিশ্চিত করতে পারেন না।’


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

error: Content is protected !!