মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

দুটি কবিতা || স্বাগতিকা রোজ

তকমার স্বাদ

 

চার আঙুল ব্লাকবোর্ড !
ভাগ্য-কারিগরের রকমারি ফর্দ

দুঃখ পড়েছে প্রথম সারিতে
সুখের দুয়ারে ধূসর যবনিকা।

দিনরাত যাঁতাকলে পিষ্ট মনকুঠুরি,
স্বপ্নকলাই খোসা পাল্টায়
অন্যের ভোগে নিজেরে বিলায়।

ঘঁষেমেজে চমক মেলে
বসন্ত আসে না কোন কালে।

আমি-তুমি-সে চরিত্রজালে বেঁধে
লম্ফ-ঝম্প আলো দিক-মুখে

অভিনয় গঞ্জ-হাটে
গুণ-চেহারার দামাদামি!

ঘাটে ঘাটে তহশীলদার
তোলে আবিরত খাজনাপাতি

হতাশার আঁটি মাথায় প্রতিদিন ঘরে ফেরা,
গোঙানি সম্বল।

সারাদেহের লালস্রোতে
গড়ল ঢেলেছে বুঝি নীলঘড়া!

ধ্বংস খাবলা তোলপাড়!
কষ্টের- স্রাবধারা নিরন্তর।

তবু ছুটে চলা,
কপাল জুড়ে সারি সারি তিলকের দাগ

সন্ন্যাসী-মনে তকমার স্বাদ
অবিরত মোছে ডাস্টার।

ফানুস

 

আশ্রয় পেয়েছিলাম পার্থিবের কালো নিকেতনে পৌষ হিম নিশীথে
পূষ্যা নক্ষত্রের আলো দানে চোখে লেগেছিল গোলকধাঁধা
মনে পড়ে না পরাগত কোন অধ্যায় ছিল কি না
চুরি করে বায়োস্কোপ দেখার অপরাধে দন্ডিত কি অন্ধকার কারাগারে?
সবকিছু ঢাকা নিয়তির রহস্য জোছনায়।

প্রশ্ন গিটার লিরিক তোলে, ঝিল্লিকা কলিংবেল মনপাটাতনে টোকা মারে
দুঃসহ পরবাসে নিসঃঙ্গ বেলাভূমিতে পরজীবির ক্ষণিক বেড়ে ওঠা।
একান্ত জন বুঝতে চায় না চোখের দূর্বিনীত ভাষা
দেহকামরায় দুঃখ কষ্টের জারিসারি, ফাগুন পাতনযন্ত্রের শিকার

শৈশব সিঁড়ি ডিঙিয়ে যৌবান পাবনে ভাসা, দিনরাত্রি অদল বদল
নিজের জরিপ হল না আজো, হতে পারিনি সফল অরিন্দম
আলো আঁধারের কানামাছি খেলায় হিমশিম

কেন আশ্রয় নিয়েছিলাম রসিক ইন্দ্রজালে, মন বৈতালিক অনুক্ষণ
মহাবনে জীবন আমৃত্য, সচ্ছ ফানুস খুঁজে বেড়ায় নিরপরাধা খাটাস।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত