শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২

দুর্নীতি: দেড় বছরে ৩৫০ জনপ্রতিনিধি অপসারণ ও বরখাস্ত

দুর্নীতির অভিযোগে গত দেড় বছরে সাড়ে তিনশ জনপ্রতিনিধিকে অপসারণ ও বরখাস্ত করেছে সরকার। তাদের বিরুদ্ধে ওএমএস চাল, ভিজিডি কার্ড ও প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিতরণের তালিকা তৈরিসহ গরিবের ত্রাণ ও সরকারের বিভিন্ন সহায়তা কর্মসূচিতে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বক্তব্য, আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়া ও সরকারি কর্মকর্তাদের মারধর করার মতো গুরুতর অপরাধও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। যদিও কয়েকজনের বরখাস্ত আদেশ নিয়ে নানা প্রশ্নও রয়েছে।

আবার অনেকের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকার পরও বরখাস্ত করা হয়নি। শুধু তাই নয়, বরখাস্তকৃতদের কেউ কেউ সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ফের জনপ্রতিনিধি হয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আরও জানা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর দেশের মানুষের জন্য সরকারের বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ দেওয়ার কর্মসূচি বাড়িয়ে দেওয়া হয়। ওই সময় অনিয়মের অভিযোগ বেশি ওঠে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের এপ্রিল থেকে চলতি বছরের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত এসব জনপ্রতিনিধিদের অপসারণ ও বরখাস্ত করা হয়।

তাদের মধ্যে ৩১৫ জনই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য। পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলর ১২ জন এবং উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান ৯ জন রয়েছেন। বরখাস্তের তালিকায় আছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মাদ জাহাঙ্গীর আলম ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ইরফান সেলিমও।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত