বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২

দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে যৌনকর্মীর ঘরে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) ভোর ৫টার দিকে যৌনপল্লীর জোসনা বেগমের ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের ধারণা অতিরিক্ত যৌন উত্তেজক ঔষুধ সেবনের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি ঢাকার ওয়ারী এলাকার ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন বাবু (৫০)।

পুলিশ ও যৌনপল্লী সূত্রে জানা গেছে, দেলোয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে যৌনপল্লীতে আসেন। সারা রাত যৌনপল্লীর বিভিন্ন স্থানে ঘোরাফেরা করে ভোর ৪টার দিকে স্থানীয় এক দোকান থেকে যৌন উত্তেজক ঔষুধ সেবন করে পল্লীর আনোয়ারা বাড়িওয়ালির ভাড়াটিয়া জোসনা বেগমের ঘরে আসে। এর কিছুক্ষণ পড়েই প্রেসার বেড়ে গিয়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। অবস্থা বেগতিক দেখে যৌনকর্মী জোসনা বেগম ভোর ৫টার দিকে আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় তাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক চন্দন কুমার জানান, দেলোয়ার হোসেন বাবু নামের ওই ব্যক্তিকে ভোর সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতালে আনা হয়। তবে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়। পরে আমরা বিষয়টি পুলিশকে জানাই।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই দেওয়ান শামীম আহমেদ জানান, খবর পেয়ে আমরা হাসপাতালে গিয়ে মৃত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে তার পকেটে থাকা ব্যাক্তিগত মোবাইল ফোন থেকে নাম্বার সংগ্রহ করে পরিবারকে খবর দিই। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে মৃতের স্ত্রী, দুই ছেলে মেয়ে ও স্বজনরা থানায় আসেন।

দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী জানান, তার স্বামী হার্টের রোগী ছিলেন। তার বুকে রিং পরানো রয়েছে। কিছু দিন আগে অসুস্থ হয়ে সিসিইউতে চার দিন ভর্তি ছিলেন। তবে তিনি মাঝে মধ্যেই ব্যবসায়িক কাজের কথা বলে রাতে বাড়িতে ফিরতেন না।

গোয়ালন্দঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ্ আল তায়াবীর জানান, ধারণা করা হচ্ছে অতিরিক্ত যৌন উত্তেজক ঔষুধ সেবনের কারণে তিনি মারা গেছেন। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।


© 2022 - Deshbarta Magazine. All Rights Reserved.