মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

Advertisement

নতুন করে করারোপ হচ্ছে না সঞ্চয়পত্রে

Advertisement

বর্তমানে সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর উৎসে কর রয়েছে ৫ শতাংশ। আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সকল ধরনের সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর উৎসে করা ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। বর্ধিত এ কর আরোপের প্রস্তাব নিয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে।

বলা হচ্ছে, এ কর বৃদ্ধি সমাজের মধ্যবিত্ত, অবসরভোগী ও ক্ষুদ্র সঞ্চয়কারীদের আয়ের ওপর সরাসারি আঘাত করবে। এমনকী সংসদে এ নিয়ে বিরূপ সমালোচনা করা হয়েছে। এরই প্রেক্ষাপটে সরকার সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর বর্ধিত উৎসে কর প্রত্যাহার করতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে জানা গেছে, সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর বর্ধিত কর প্রত্যাহারের বিষয়ে সরকারের দুটি চিন্তা রয়েছে। একটি হচ্ছে- বাজারে প্রচলিত সকল ধরনের সঞ্চয়পত্রের ওপর থেকে বর্ধিত কর প্রত্যাহার করা হবে। অথবা, শুধুমাত্র পরিবার-ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ও পেনশনার সঞ্চয়পত্রের ওপর তা প্রত্যাহার করা হবে।

সূত্র জানায়, সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর বর্ধিত কর প্রত্যাহার করা হচ্ছে। তবে সব ধরনের সঞ্চয়পত্রের ওপর নাকি শুধুমাত্র পারিবারিক ও পেনশনার সঞ্চয়পত্রের ওপর বর্ধিত কর প্রত্যাহার করা হবে- সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। এ বিষয়ে নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পাসের দিন তথা ৩০ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্ধিত কর প্রত্যাহারের প্রস্তাব করতে পারেন।

উল্লেখ্য, পারিবারিক সঞ্চয়পত্র শুধুমাত্র মহিলারা ক্রয় করতে পারেন। আর পেনশনার সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন অবসরভোগী চাকরিজীবীরা।

Advertisement


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত