শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

নীলাদ্রি : নিশাত ফাতেমা

নীলাদ্রি,
তুমি বিশাল, অপূর্ব
যুগের পর যুগ এই ধরায়
বেঁচে থাকবে চিরন্তন।
তোমায় দর্শনে মুগ্ধ
প্রেমে পড়ে গেলাম
তুমি মানে দিগন্ত মাতাল
ঝকঝকে শ্যামল রোদ
তুুমি অপরূপা কত রূপে রূপায়িত
তোমার পাশে যেতেই
মন আলুতালু হয়ে গেল।

তুমি ঈশারায় বললে কেমন আছ নীলা?
আমি বিড়বিড় করে বললাম;
ভালো ছিলাম না!
খুবই তৃষ্ণার্ত ছিলাম
তোমায় দেখে তৃষ্ণা থেমে গেছে!
কি মধুর সম্পর্ক শ্যাওলার
সূর্যের আভায় তোমার হাসি
মুক্তার মত ঝিকমিক করছে।

আমি কল্পশক্তিতে রন্ধ্রেরন্ধ্রে
সাঁতার কাটছি তুমি বললে;
এসো আমার কাছে।
এক ঝাক বুনো হাঁস
ব্যাকুল ভাবে তুমার বুকে
প্রেম অনুনয় করছে
আমি বললাম এসো;
এই জলে তৃষ্ণা নিবারণ কর!
ওরা নেমে পড়ল,
আমিও লোভ সামলাতে পারিনি
তোমার জলে পা রাখলাম
ছোট ছোট পাথর গুলি আমার পায়ে সুড়সুড়ি দিল।

হাতের স্পর্শ করতে বললে
পান কর আমার জল
আমি করিনি
যদি তৃষ্ণা মিটে যায়
আর আসবো না
আমি বার বার তোমার কাছে
আসতে চাই।
বারবার আসবো তোমার কাছে।
তোমাকে ছোঁয়ায় মনটা নীলাভিত হল
কেন জানি মনে হল তুমি কাঁদছ
তোমার আবার দুঃখ কিসের?
প্রতিক্ষণে তুমি হাজারো
লোকের সাথে বন্ধুত্ব কর!
সবাই তুমাকে হৃদয়ে ধারন করে
চলে যায়!
কিন্তু এই পাহাড় যুগের পর যুগ
তোমার সাথে আছে
একটুও আঘাত করেনি।

আমার মনে হয় দিন শেষে
রাতের গভীরে তোমরা মিলিত হও
ভারতীয় মেঘালয় পাহাড়
আকাশ হেলান দিয়ে ঘুমায়।
আর তুমি পাহাড় হেলান দিয়ে ঘুমাও।


© 2022 - Deshbarta Magazine. All Rights Reserved.