রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১

পরকীয়ার জেরে যুবককে ৬ টুকরা করেন ইমাম

রাজধানীর দক্ষিণখান সরদার বাড়ি জামে মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে আজহারুল নামে এক গার্মেন্টস কর্মীর অর্ধগলিত ছয় টুকরা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই মসজিদের ইমামের স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার কারণেই এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সরদার বাড়ি জামে মসজিদের ইমাম আব্দুর রহমানকে আটক করেছে র‍্যাব-১।

মঙ্গলবার বিকেলে কারওয়ান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান লে. কর্নেল মো. আব্দুল মোত্তাকিম। তিনি বলেন, ঘটনার দিন এশার নামাজের পর থেকে ভোর পর্যন্ত ছয় টুকরা করা হয় আজহারকে।

র‍্যাব -১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. আব্দুল মোত্তাকিম বলেন, স্থানীয় গার্মেন্টস কর্মী আজহার ১৯ তারিখ থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এমন অভিযোগে অনুসন্ধান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পরে সন্দেহ হওয়ায় ইমামকে আটক করে র‍্যাব। জিজ্ঞাসাবাদের পর হত্যার ঘটনা সামনে আসে। এ সময় হত্যায় ব্যবহৃত অভিযুক্তের কাছ থেকে তিনটি চাকু ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

লে. কর্নেল মো. আব্দুল মোত্তাকিম বলেন, মাওলানা মো. আব্দুর রহমান সরদারবাড়ি জামে মসজিদে ৩৩ বছর ইমামতি করে আসছিলেন। নিহত আজহারের ছেলে আরিয়ান মসজিদটির মক্তবে পড়াশোনা করত। আজহারও তার কাছে কোরআন শিক্ষা গ্রহণ করত। এই সুবাদে তাদের মধ্যে পারিবারিক সম্পর্ক ছিল।

১৯ মে মাওলানা আব্দুর রহমানের সঙ্গে আজহারের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে আজহারের গলার ডানপাশে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন আব্দুর রহমান।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ধামাচাপা দিতে মরদেহ টুকরো টুকরো করে মসজিদের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখেন। এরপরও ইমাম আব্দুর রহমান মসজিদে নিজের রুমেই অবস্থান করে আসছিলেন।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত