শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

ফারহানা নীলা’র কবিতা

বিলীন রেখায় পথ

পথও তো সরে যায় বাঁকের মুখে জমাট আঁধার
পথিক ভেবেই পথে নামি; আগেও নেমেছি
তখন পথই পথ দেখিয়ে নিয়েছিল
এখন পথটা কানাগলি!

কিছু মুচি বসেছিল; চামড়ার ভাঁজে পথ বেকার মুচির ঝোলা

কেউ কোর্ট কেটে গেছে র‍্যাকেট বাতাস কাটে পথে বন্ধ চলাচল

কারও হাতে বল খোঁজে নিশানা সঠিক
উইকেটের পেছনে ছোটে বেসামাল
ছক্কা আর চার- তুমুল হুল্লোড়ে

পথিকের আমি? পথের পথিক? কেমন প্রশ্নের সব বাহানা তিলক?

কারও কারও জন্য পথ
থাকেনি পথের মতো; তবুও পথিক
মাত্রই পথটা বাঁক বদলে বিলীন রেখায় পদাঙ্ক এঁকেছে

ওখানেই দিগন্তরেখায়
জল আকাশের গভীর প্রণয়-কিছু ছলাকলা আর সূর্যের আদরে আহ্লাদী চাঁদের গল্প।

যে পথটা নেই হল; ওটা তো আমার পথ ছিল
তোমার পথটাও কি এটা?

সবার জন্যই পথ থাকে না বলেই আমার পথিক হওয়া হয়নি;
অথচ পথিক তকমায় আমি-তুমি আর কতজন?

আসলেই কি পথের মতন পথ পেয়েছে জীবন?
পাঁড় মাতাল খুঁড়ছে নিজের ভেতর মাটি; দুই দুয়ারি মনের কোণে পথটা নাকাল!

তবে যে বলেছ- সব পথই থাকে পথের আড়ালে!
বানিয়ে বলেছ জানি- তবু সাধ জাগে
একবার পথে নামি পথ চিনে!


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত