শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯

ফেসবুক ভ্যাটের আওতায়

বিদেশি টিভি চ্যানেল বাংলাদেশে কোনো বিজ্ঞাপন প্রচার করলে তার জন্য ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হবে। একই সঙ্গে ফেসবুক, গুগলসহ আন্তর্জাতিক অন্যান্য তথ্যপ্রযুক্তি সেবায় উল্লিখিত হারে ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে। নতুন ভ্যাট আইনে বিদেশি টিভিসহ ওইসব সেবাকে ভ্যাটের আওতায় আনা হয়। ১ জুলাই থেকে এটি কার্যকর হবে।

জানা যায়, বর্তমানে দেশীয় টিভি চ্যানেলগুলো বিজ্ঞাপন প্রচারসহ বিভিন্ন সেবায় প্রযোজ্য হারে ভ্যাট পরিশোধ করলেও এতদিন বিদেশি টিভি চ্যানেল এর বাইরে ছিল। এনবিআর বলেছে, এ ক্ষেত্রে সমতা আনতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এনবিআরের এক কর্মকর্তা বলেন, সংবাদপত্র ও স্থানীয় টেলিভিশনের বাইরে বিদেশি টিভি চ্যানেলে বিশাল অঙ্কের বিজ্ঞাপনের অর্থ লেনদেন হচ্ছে। স্থানীয় দর্শক-শ্রোতারা এসব বিজ্ঞাপন দেখছে। এতদিন উল্লিখিত সেবা ভ্যাটের আওতার বাইরে ছিল। এখন নতুন করে এদের ভ্যাট দিতে হবে। এ বিষয়ে এনবিআর একটি নির্দেশনা দিয়েছে বুধবার বিকেলে।

জানা যায়, এই ভ্যাট আদায় করার জন্য কিছু নিয়ম-কানুন জুড়ে দিয়েছে এনবিআর। বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য বিদেশি টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে এদেশে তাদের এজেন্ট নিয়োগ করতে হবে। এরা ভ্যাট আদায় করে সরকারি কোষাগারে জমা দেবে। নিয়োগকারী এজেন্ট বা সংস্থাকে বাধ্যতামূলক ভ্যাট নিবন্ধন নিতে হবে এবং নিয়মিত ভ্যাট রিটার্ন (হিসাব বিবরণী) দাখিল করতে হবে।

এনবিআর বলেছে, বিদেশি টিভি চ্যানেল ছাড়াও ফেসবুক, গুগল, ইউটিউব, ভাইবার, ম্যাসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপসহ সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভয়েস, বিজ্ঞাপন সেবাও রয়েছে। এসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে যে অর্থ লেনদেন হবে, তার বিনিময়ে প্রযোজ্য হারে ভ্যাট দিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত অর্থবছরে এসব মাধ্যমে অর্জিত আয়কে করের আওতায় আনা হয়। প্রস্তাবিত বাজেটে ভ্যাটের  আনা হলো।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

error: Content is protected !!