বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাংলায় দারিদ্র্য হবে সুদূর অতীতের কোনও ঘটনা : প্রধানমন্ত্রী

আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্বে শেখ হাসিনা এ অঙ্গীকার করেন।

তিনি বলেন, ২০৪১ সালে ১৬ হাজার মার্কিন ডলারের বেশি মাথাপিছু আয় নিয়ে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে পরিণত হবে। সোনার বাংলায় ‘দারিদ্র্য’ হবে সুদূর অতীতের কোনো ঘটনা। রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়ন করে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তুলনীয় এক শান্তিপূর্ণ, সমৃদ্ধ, সুখী এবং উন্নত জনপদ।

টানা ১০ বছরে তার সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশি-বিদেশি নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে উন্নয়ন, অগ্রগতি আর সমৃদ্ধিও পথে হাঁটছে আজকের বাংলাদেশ। ৪২ বছর স্বল্পোন্নত দেশের তালিকায় থাকার পর বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে শামিল হওয়ার স্বীকৃতি পেয়েছে। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ থেকে আজকের এই উত্তরণ, যেখানে রয়েছে এক বন্ধুর পথ পাড়ি দেওয়ার ইতিহাস।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়। এতে সরকারি ও বিরোধী দলের একাধিক সংসদ সদস্যের লিখিত প্রশ্নের জবাব দেন সংসদ নেতা।

সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমানের তারকাচিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ২০০৯ সালে শুরু হওয়া আওয়ামী লীগ সরকারের অগ্রযাত্রা গত ১০ বছরে অব্যাহত রয়েছে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি, অবকাঠামো উন্নয়ন, কৃষি, পলতী উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচন এবং শিল্পে দেশি-বিদেশী বিনিয়োগের লক্ষে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠাসহ নানামুখী কর্মকাণ্ডের ফসল আজকের এই উন্নয়ন। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশের ঈর্ষণীয় সাফল্য দক্ষিণ এশিয়াসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য এক অনন্য দৃষ্টান্ত হিসেবে সমাদৃত হয়েছে।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত