মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক অনিয়ম খুঁজবে দুদক

দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আর্থিক অনিয়ম খুঁজে দেখার উদ্যোগ নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) কাছে তথ্য চেয়েছে সংস্থাটি। সম্প্রতি পৃথক চিঠির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের তহবিল আত্মসাৎ, আয়-ব্যয়ের হিসাব না দেয়া ও ট্রাস্টি সদস্যদের আর্থিক অনিয়ম বিষয়ে তথ্য সংবলিত প্রতিবেদন পাঠাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেও ইউজিসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ইউজিসি সূত্রে জানা যায়, একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনায় দীর্ঘদিন ধরে নানা অনিয়ম করে আসছে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। আইনে বর্ণিত বেশির ভাগ নির্দেশনা অনুসরণ করছে না এসব উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন সময় ইউজিসির তদন্তেও গুরুতর অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। যদিও আইনি সক্ষমতা না থাকায় এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেনি নিয়ন্ত্রক এ সংস্থা। এ অবস্থায় ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো সুপারিশও খুব বেশি গুরুত্ব পায়নি।

এ প্রসঙ্গে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, হাতেগোনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ছাড়া বেশির ভাগ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ই অনিয়মে জড়িত। বড় বড় অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি সদস্যদের বিরুদ্ধে। অনেক ঘটনা তদন্তে প্রমাণিত। এসব বিষয়ে আমরা বিভিন্ন সময়ে মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছি। কয়েকদিন আগে দুদক থেকে অনিয়মের বিষয়ে তথ্য চাওয়া হয়েছে। এর কয়েক মাস আগে মন্ত্রণালয়ও একই ধরনের অনিয়ম বিষয়ে জানতে চেয়েছে। এসব বিষয়ে প্রতিবেদন প্রণয়নের কাজ প্রক্রিয়াধীন।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আর্থিক অনিয়মের মধ্যে ট্রাস্টি সদস্য কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অন্যতম।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত