সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১

ব্যাংকিং লেনদেন : যন্ত্রই এখন টাকা গুনে জমা নিচ্ছে-দিচ্ছে

করোনাভাইরাসের কারণে ব্যাংকের গ্রাহকেরা এখন বেশ সতর্ক। তাঁদের অনেকেই আজকাল ব্যাংকে লাইনে দাঁড়িয়ে টাকা জমা দিতে বা ওঠাতে চাইছেন না। এ কারণে ব্যাংকগুলো যন্ত্রনির্ভর সেবায় বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে।

টাকা জমার জন্য এটিএম তো আগে থেকেই রয়েছে। এখন তাৎক্ষণিকভাবে গ্রাহকদের টাকা জমা নেওয়া ও উত্তোলন-সুবিধা দেওয়ার যন্ত্র ক্যাশ রি-সাইকেলার মেশিন (সিআরএম) স্থাপন করে চলেছে। সম্প্রতি এই যন্ত্র স্থাপন বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। এই যন্ত্রে লেনদেনের পরিমাণও চার গুণের বেশি বেড়েছে।

ব্যাংকগুলোর সিআরএম স্থাপন বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে গ্রাহকদের ব্যাংকে টাকা জমা করতে এখন আর ব্যাংকিং সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে না। কি রাত কি দিন, যেকোনো সময়ই টাকা লেনদেন করা যাচ্ছে।

দেশের আটটি ব্যাংক ইতিমধ্যে ক্যাশ রি-সাইকেলার মেশিন বা সিআরএম চালু করেছে। সিআরএম ১০, ২০, ৫০, ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট গুনে নিচ্ছে এবং দিচ্ছেও। টাকা আসল না জাল, তা-ও ধরা পড়ছে সিআরএমে।

জমার স্লিপে থাকছে টাকার নম্বরসহ কী পরিমাণ জমা হলো, তার হিসাব। যন্ত্রটি প্রতি সেকেন্ডে ৮-১০টি নোট গুনতে সক্ষম। জানা গেছে, বর্তমানে একটি সিআরএমের দাম ১৪-১৫ লাখ টাকা। আর একটি এটিএমের দাম ৪-৫ লাখ টাকা।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত