মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

ব্যাংকে টাকা জমিয়ে আগের মতো লাভ হচ্ছে না

কয়েক মাস আগেও ব্যাংকগুলো ৯ থেকে সাড়ে ১০ শতাংশ পর্যন্ত সুদে মেয়াদি আমানত নিত। গত এপ্রিল থেকে ক্রেডিট কার্ড ছাড়া সব ঋণের সুদহার ৯ শতাংশ নির্ধারণের পর মেয়াদি আমানতে এখন বেশিরভাগ ব্যাংক ৬ শতাংশ সুদ দিচ্ছে।

আমানতের পরিমাণ ও মেয়াদ ভেদে কোনো কোনো ক্ষেত্রে সাড়ে ৬ থেকে ৭ শতাংশ সুদ দেওয়া হচ্ছে। আর অধিকাংশ ব্যাংক বেশি সুদের আমানত স্কিম বন্ধ করে দিয়েছে। এ ধরনের মেয়াদি স্কিমে যাদের টাকা রয়েছে, অনেক ক্ষেত্রে তাও বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। আবার চাকরি হারিয়ে বা আয় কমে যাওয়ায় অনেকেই নিজ থেকে মেয়াদপূর্তির আগেই স্কিম ভাঙিয়ে ফেলছেন। এক্ষেত্রে তারা সুদ পাচ্ছেন সঞ্চয়ী হারে।

বর্তমানে সাধারণ সঞ্চয়ী হিসাবে ব্যাংকগুলো ২ থেকে ৪ শতাংশ সুদ দিচ্ছে। অবশ্য সমস্যাগ্রস্ত কয়েকটি ব্যাংক মেয়াদি আমানতে এখনও ৯ শতাংশ পর্যন্ত সুদ দিচ্ছে।
সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অর্থ উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, মূল্যস্ম্ফীতি, আবগারি শুল্ক্ক, উৎস কর, সার্ভিস চার্জ বিবেচনায় নিলে ব্যাংকে টাকা রেখে প্রকৃতপক্ষে কোনো লাভ হয় না।

সব মিলে হিসাব করলে দেখা যাবে মূলধনই কমে যায়। এ প্রবণতা ভালো নয়। এতে মানুষ সঞ্চয়ের প্রতি নিরুৎসাহিত হবে। তখন ব্যাংকগুলোর হাতে ঋণযোগ্য তহবিল কমে বেসরকারি বিনিয়োগ কমবে। কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য যা বাধা হয়ে দাঁড়াবে।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত