রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাদ্রাসা শিক্ষকের একী কাণ্ড!

সিলেবাস দেওয়ার কথা বলে বাসায় ডেকে নিয়ে অষ্টম শ্রেণি পড়ূয়া এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে একই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক। রোববার সকাল ১১টার দিকে বরগুনা সদর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম সাইফুল ইসলাম। তিনি উপজেরার সাহেবের হাওলা রফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসা ও ইয়াতিমখানার শরীর চর্চা শিক্ষক। ওই ছাত্রীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই ছাত্রীর মা জানান, সকাল ১১টার দিকে তার মেয়েকে শিক্ষক সাইফুল ইসলাম সিলেবাস দেওয়ার কথা বলে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে পাশবিক নির্যাতন করে। পরে খবর পেয়ে স্থানীয়দের নিয়ে শিক্ষকের বাসা থেকে মেয়েকে উদ্ধার করেন। তার শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. শাকিল তানভীর বলেন, প্রাথমিকভাবে মেয়েটিকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে সে।

বরগুনা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। আসামিকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।

এদিকে ঘটনার পর পরই পালিয়েছেন অভিযুক্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলাম। তবে এলাকাবাসী এ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান মারুফ মৃধা বলেন, এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া হবে না। ধর্ষককে দ্রুত গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনা না হলে গ্রামবাসীকে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচি দেওয়া হবে।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত