সোমবার, ২৩ মে ২০২২

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হলেও বিকল্প উপায়ে ক্লাস চলবে

করোনার সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে স্কুল-কলেজ বন্ধ হলেও অনলাইনে যথারীতি চালু থাকবে ক্লাস। এ ছাড়া আগের মতো আবারো শুরু হবে ক্লাসভিত্তিক অ্যাসাইনমেন্ট। একই সাথে সংসদ টিভির মাধ্যমে ধারণকৃত ক্লাস লেকচারও প্রচার করা হবে শ্রেণীভিত্তিক রুটিন করে। আর এসব একাধিক বিকল্প পদ্ধতি নিয়ে ইতোমধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) একটি রোডম্যাপও তৈরি করে রেখেছে। তবে সবকিছু নির্ভর করছে করোনার সংক্রমণের হ্রাস বৃদ্ধির ওপরই।

অবশ্য ইতোমধ্যে করোনার ঊর্ধ্বগতির প্রভাবে এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করতে আদালতে রিট করা হয়েছে। গতকাল বুধবার এ বিষয়ে একটি রিট আবেদন দাখিল করা হয়েছে। আজ বৃহ¯পতিবার এ বিষয়ে শুনানি হওয়ারও কথা রয়েছে।

যদিও শিক্ষামন্ত্রী একাধিকবারই বলেছেন করোনার গতি প্রকৃতির ওপরেই নির্ভর করছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার বিষয়টি তিনি আরো বলেছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষার্র্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় নিয়েই প্রতিনিয়ত টেকনিক্যাল কমিটির সাথে আলোচনা ও পরিস্থিতি মনিটরিং করা হচ্ছে।

এ দিকে গত কয়েক দিনে একাধিক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জোর দিয়েই বলেছেন, এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে ভাবছে না সরকার। তিনি আরো বলেছেন, যেহেতু শিক্ষার্থীরা বেশির ভাগই এখন টিকার আওতায় চলে আসছে কাজেই পরিস্থিতি এখনো অনুকূলে রয়েছে। তারপরও টেকনিক্যাল কমিটির সাথে এ বিষয়ে নিয়মিত যোগাযোগ করা হচ্ছে। পরিস্থিতি বেশি খারাপ হলে তবেই বন্ধ হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্র জানায়, দিন দিন করোনা পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকেই যাচ্ছে। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে জানানো হয়েছে করোনার সংক্রমণের ঝুঁকিতে জেলার তালিকা ক্রমেই আরো দীর্ঘ হচ্ছে। গতকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদফতর দেয়া তথ্য মতে করোনার উচ্চ সংক্রমণের ঝুঁকিতে রয়েছে ১২ জেলা এবং মধ্যম ঝুঁকিতে রয়েছে ৩১ জেলা।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত