রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

শিশুর ঘুমের সাহায্যকারী খাবার ও বয়স অনুসারে ঘুমের চার্ট

শরীরকে চাঙ্গা রাখতে ঘুমের বিকল্প নেই। ঘুমের সময় শরীরের বৃদ্ধি হয়, মস্তিষ্ক যোগাযোগের জন্য আকৃতি পায়, ত্বক পুনর্গঠিত হয়। শিশুদের বৃদ্ধিতে ঘুম খুবই জরুরি একটি বিষয়। একটি ভালো ঘুম শিশুকে মনোযোগী হতে সাহায্য করে। কিছু খাবার রয়েছে, যেগুলো ঘুম ভালো হওয়ার জন্য উপকারী। তাহলে দেরী না করে চলুন দেখে নেই কি কি সেই খাবার…

দুধ

সাধারণত ঘুমের আগে বাচ্চাদের এক গ্লাস গরম দুধ দেওয়া হয়। হ্যাঁ, শিশুদের ঘুমের জন্য দুধ বেশ ভালো খাবার। দুধের মধ্যে রয়েছে ট্রিপটোফিন নামক অ্যামাইনো এসিড। এটি ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে।

কলা

কলাও ঘুমে সাহায্য করে। এর মধ্যে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম। ম্যাগনেসিয়াম পেশিকে শিথিল করে। ঘুম তৈরির হরমোন, যেমন- মেলাটোনিন, সেরেটোনিন ইত্যাদি বাড়ায়। এগুলো ঘুমের চক্রকে ভালো করে।

ওয়ালনাট

মস্তিষ্কের মতো দেখতে ওয়ালনাট মস্তিষ্কের জন্য ভালো। এর মধ্যে রয়েছে ভালো মানের ট্রাইপোফেন। ভালো ফলাফলের জন্য ঘুমানোর আগে শিশুকে ডেসার্ট হিসেবে ওয়ালনাট খাওয়াতে পারেন।

পালংশাক

 পালংশাক শিশুদের খাদ্যতালিকায় রাখা খুবই জরুরি। এর মধ্যেও রয়েছে ট্রিপটোফেন। পালংশাক সালাদে রাখতে পারেন। এ ছাড়া ঘুমানোর আগে শিশুকে পালংশাকের জুসও খাওয়াতে পারেন।

এবার দেখে নেই কোন বয়সে কতটুকু ঘুম দরকার..

শূন্য থেকে দুই মাস

 নবজাতকরা ২৪ ঘণ্টার প্রায় ১০ থেকে ১৯ ঘণ্টা ঘুমাবে। প্রি-ম্যাচিওর শিশু একটু বেশি ঘুমাবে। বুকের দুধ পান করা শিশু একনাগাড়ে এক থেকে তিন ঘণ্টা ঘুমায়। অন্যদিকে বোতলে দুধ খাওয়া শিশু দুই থেকে পাঁচ ঘণ্টা টানা ঘুমায়। তবে মাঝখানে এক থেকে দুই ঘণ্টা জেগে থাকার বিরতি থাকে। প্রথম সপ্তাহ দিন ও রাতে অনেকে ঘুমাবে। আস্তে আস্তে রাতে সাড়ে আট ঘণ্টা এবং দিনে সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার মতো ঘুমাবে।

২-৪ মাস

দিনের বেলা বাচ্চা কম করে তিন বার, আর রাতে ৯-১০ ঘন্টার ঘুম খুব জরুরি। এই সময় বাচ্চা যদি সারা দিনে ১৪ ঘন্টা ঘুমিয়ে থাকে তাহলে চিন্তা করবেন না। জানবেন এটা স্বাভাবিক।

৪-৬ মাস

 চার মাসের পর থেকে দিনে ২-৩ বার ঘুমবেই, সেই সঙ্গে রাতে কম করে ১০ ঘন্টার ঘুম প্রয়োজন আপনার বাচ্চার। অর্থাত্‍ দিনে কম করে ১৪-১৫ ঘন্টা।

৬-৯ মাস

এই বয়সে বাচ্চা সারাদিনে প্রায় ১৪ ঘন্টা ঘুমবে। দিনের বেলা কম করে দুবার। আর রাতে ঘুমবে কম করে ১০-১১ ঘন্টা।

৯-১২ মাস

 এই সময় দিনে দুবার আর রাতে ১০-১২ ঘন্টার ঘুম জরুরি। অর্থাত্‍ সারাদিনে বাচ্চা ঘুমবে কম-বেশি ১৪ ঘন্টা।

বিশেষজ্ঞদের মতে ৪ থেকে ৬ মাস বয়সে বাচ্চা রাতে ৮-১০ ঘন্তা টানা ঘুম দিতে পারে। কিছু কিছু বাচ্চা ৬ সপ্তাহ থেকে রাতে একটানা অনেকক্ষণ ঘুমাতে পারে তবে বেশীরভাগ শিশুর ক্ষেত্রে এমনটা হতে ৫-৬ মাস সময় লেগে যায়।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত