সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

সমন্বয়হীন রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি : জনসাধারণের ভোগান্তি

রাজধানীতে প্রতিবছরই বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ির কারণে ভোগান্তিতে পড়তে হয় নগরবাসীকে। বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি, পয়ঃনিষ্কাশনসহ বিভিন্ন সেবা অব্যাহত রাখতে নিয়মিতই রাস্তা খুঁড়তে হয়, সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে।

এক্ষেত্রে সমন্বয় না থাকায় জনভোগান্তি চরমে উঠেছে। যদিও এই ভোগান্তি বন্ধ করতে চায় সিটি করপোরেশন। এক্ষেত্রে রাজধানীতে কমন ইউটিলিটি টানেল চালু করার পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের খামখেয়ালীতে চলমান একটি রাস্তার কী দশা হতে পারে তা আন্দাজ করা যায়। অনেক সময় দেখা যায়, পাইপ অনেকদিন পড়ে থাকে। কবে রাস্তা খুঁড়ে পাইপ বসানো শুরু হবে তা জানেন না এখানকার মানুষ। তবে এর আগেই রাস্তার যেখানে সেখানে ইচ্ছেমতো পাইপ ফেলে রাখায় প্রায় বন্ধ রাস্তায় দুর্ভোগ বেড়েছে সাধারণ মানুষের।এলাকাবাসী বলেন, ‘হঠাৎ করে তারা এখানে বড় বড় পাইপ ফেলে রেখে গেছে। তাদের আর কোনো খোঁজ-খবর নেই। এগুলোর কারণে পথচারীদের যে দুর্ভোগ বাড়ছে তা বোধহয় কারো মাথায় ঢোকে না।’

রাজধানীতে উন্নয়নের এমন বিড়ম্বনা প্রায়ই সইতে হয় নগরবাসীকে। রাস্তা খোঁড়ার পর যথাসময়ে তা ঠিক না হওয়া কিংবা একই রাস্তায় ভিন্ন ভিন্ন সময়ে মাটি খোঁড়া নিয়ে তীব্র আপত্তি তাদের।

এলাকাবাসী বলেন, ‘এভাবে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি করলে দেখা যায় গ্যাসের পাইপ কেটে গেছে। সাধারণ মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। সুতরাং পরিকল্পনা মতো রাস্তা খোঁড়া উচিৎ।’

অবশ্য জনভোগান্তির কথা স্বীকার করে সিটি করপোরেশন বলছে, এক্ষেত্রে তারা বিভিন্ন পদক্ষেপ নিলেও তা সফল হয়নি।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত