বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯

সর্বজনীন পেনশনের জন্য কাজ শুরু করেছে সরকার

উন্নত দেশের মতো বাংলাদেশেও সর্বজনীন পেনশন চালু করতে চায় সরকার। পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানিয়েছেন, সরকার সবার জন্য পেনশন চালু করতে চায়। এ জন্য প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে।

গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর বারিধারায় গার্ডিয়ানা হোটেলে ‘ইন্ট্রোডিউসিং এ ইউনিভার্সাল পেনশন স্কিম ইন বাংলাদেশ : ইন সার্চ অব এ ফ্রেমওয়ার্ক’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমরা ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছি। আমার জানা মতে, আমাদের অর্থ মন্ত্রণালয়ের ভেতরে ছোট একটি সেল বা প্রতিষ্ঠান আছে, যারা এ বিষয়টা নজরে রেখে প্রাথমিক কাজ শুরু করেছে।

এম এ মান্নান বলেন, যে বিষয়টা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, এর মধ্যে আমরা চলে এসেছি। প্রায় ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ মানুষকে আমরা নানাভাবে ছুঁয়ে যাচ্ছি। তার মানে বেশি এলাকা আমরা কাভার করে ফেলেছি। আর সামান্য বাকি। আমার মনে হয়, আমরা পারব।

মন্ত্রী বলেন, সরকারের সাংবিধানিক দায়িত্ব দেশের জনগণের জন্য ভাত কাপড়ের ব্যবস্থা করা এবং আমাদের সরকার সেটি করেছে। আমাদের সরকার ৯৬ সালে যখন ক্ষমতায় আসে তখন মাথাপিছু ১০০ টাকা ভাতা দিয়ে কল্যাণমুখী কাজ শুরু করেছিল। এবার ক্ষমতায় আসার পর এটি এক্সপান্ড করেছে।

জানা যায়, একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর সবাই পেনশন পাবে। বর্তমান পেনশন ব্যবস্থাকে বাতিল করে আলাদা সর্বজনীন পেনশন চালু হবে। যাতে একটা নির্দিষ্ট স্কীম চালু থাকবে, নিট আয় অনুযায়ী সবাই এতে অংশ নেবে এবং সে অনুযায়ী পরবর্তীতে পেনশন ভোগ করবে। খুব তাড়াতাড়ি এ ব্যবস্থা চালু করতে কাজ শুরু হয়েছে। ২০২০ সাল থেকে শুরু হওয়া ৮ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় এটি শুরু করতে চায় সরকার।


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত