মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০

সামরিক অভিধান থেকে মার্শাল ল বাদ দেওয়া উচিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মার্শাল ল (সামরিক আইন) রক্তপাত ছাড়া দেশ ও সশস্ত্র বাহিনীর কোনো কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না। তাই ‘সামরিক অভিধান’ থেকে মার্শাল ল শব্দটি বাদ দেওয়া উচিত।’ প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দের ঊর্ধ্বে থেকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, সততা, দক্ষতা ও পেশাদারিত্বকে অগ্রাধিকার দিয়ে ন্যায়নীতির ভিত্তিতে সশস্ত্র বাহিনীতে পদোন্নতি দেওয়ার জন্যও সংশ্নিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

সোমবার সশস্ত্র বাহিনী নির্বাচনী পর্ষদ-২০২০ এর (প্রথম পর্ব) সভায় বক্তব্যে এ আহ্বান জানান সরকারপ্রধান। গণভবন থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে ভাষণ দেন তিনি। খবর বাসস, ইউএনবির।

জিয়াউর রহমানের সামরিক শাসনামলের ১৯টি ক্যুর কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ওই সময়ে বহু সামরিক কর্মকর্তা ও সৈনিককে হত্যা করা হয়। তার আমলে সশস্ত্র বাহিনীর এত বিপুলসংখ্যক কর্মকর্তা ও সৈন্যকে হত্যা করা হয়েছে যে, যুদ্ধেও এত সৈন্য নিহত হয়নি। আমরা (সশস্ত্র বাহিনীতে) আর কোনো ছেলেহারা পিতা বা পিতাহারা ছেলের কান্না শুনতে চাই না।’


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত