মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

স্থগিতকৃত ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন ফেব্রুয়ারিতে

ক্যাপসুলে সমস্যা থাকায় স্থগিত হওয়া জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ক্যাম্পেইন ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তবে নির্ধারিত দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

মন্ত্রণালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে পরিবর্তিত তারিখের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে এই টিকাদান কর্মসূচি পালন করার চিন্তা-ভাবনা চলছে। তবে চূড়ান্ত দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

জানা গেছে, এবার দেশিয় কোম্পানির তৈরি ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। যে ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে, তার মেয়াদ ২০২১ সাল পর্যন্ত রয়েছে বলেও জানা গেছে।

দেশে রাতকানা রোগ প্রতিরোধে জাতীয় পুষ্টি কর্মসূচির আওতায় রাজধানীসহ সারাদেশে ৬-১১ মাস বয়সী এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর নির্ধারিত দিন ছিল গতকাল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ক্যাপসুলে গুণগত মানে সমস্যা থাকায় তা স্থগিত করে দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

এ ঘটনায় এরইমধ্যে অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. এনায়েতুর রহমানকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

গেল সপ্তাহে বিভিন্ন জেলায় সরবরাহকৃত ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলগুলোর মধ্যে লাল ও নীল ক্যাপসুলকে একটির সঙ্গে আরেকটিকে লেগে যেতে দেখা গেছে। এর ফলে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করে তা স্থগিত করা হয়।

১৯৭৪ সাল থেকে জাতীয়ভাবে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কার্যক্রম চলে আসছে। এর আওতায় ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়। গেল বছরে এ কার্যক্রমের আওতায় ক্যাপসুল খাওয়ানোর কভারেজ বেড়ে ৯৯ শতাংশে উন্নীত হয়।

আর চলতি বছরে চলমান এই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে দেশের প্রায় ২ কোটি ১৯ লাখ শিশুকে ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কথা রয়েছে।


© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত