সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

Advertisement

হাওরে সড়ক মেরামতের ইট যাচ্ছে একজনের বাড়িতে

Advertisement

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ-গাগলাজুর ডিঙাপুতা হাওরে সড়কের ভাঙাস্থানগুলো মেরামতের ইট আরেক জায়গায় বিক্রির অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, এলজিইডির অধীন মোহনগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে গাগলাজুর বাজার পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য সড়কটি মেরামতের অভাবে ভেঙে গিয়ে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়। এতে করে ধান বোঝাই যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ফলে চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলার গাগলাজুর ইউনিয়ন, তেতুলিয়া ইউনিয়ন ও বড়তলী-বানিয়াহারী এ তিনটি ইউনিয়নের কৃষকেরা হাওরে তাদের উৎপাদিত বোরো ধান বাড়ি আনা এবং উপজেলা সদরে নিয়ে বিক্রি করার ক্ষেত্রেও চরম ভোগান্তির স্বীকার হয়ে আসছেন।

এ অবস্থায় এলাকাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে কৃষকের উৎপাদিত ধান হাওর থেকে বাড়ি আনার বিষয়টি অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়। তাই নেত্রকোনা এলজিইডি কার্যালয় থেকে কোনো টেন্ডার ছাড়াই বিশেষ ব্যবস্থায় (জরুরি ভিত্তি) সড়কের ভাঙাস্থানে ইট ও বালু দিয়ে মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হয়।  এ জন্য গত কয়েক দিন ধরে ওই সড়কে একটি লরি দিয়ে বিভিন্ন ইটভাটা থেকে ইট আনা শুরু করেন লেবার সর্দার খাইরুল ইসলাম ও লরির চালক সুনীল হাজং। তবে প্রতিটি ইট বোঝাই লরি থেকে অর্ধেক ইট তেতুলিয়া গ্রামের শহীদের বাড়িতে রেখে আসায় স্থানীয় এলাকাবাসীর নজরে আসে।

তেতুলিয়া গ্রামের সাজ্জাদ ও মনিরুল ইসলামসহ অনেকেই জানান, গত দুই বছর আগে ওই সড়কটির নির্মাণ কাজ করা হয়। তখন পাহারাদার হিসেবে  ঠিকাদার দায়িত্ব দেন শহীদ মিয়াকে। ওই সময় থেকেই সড়ক থেকে রড, সিমেন্ট, ইট, বালু চুরি করে ওই নির্মাণসামগ্রী দিয়ে বাড়ি নির্মাণ করেন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা শহীদ। ওই সড়কে যখনই কোনো উন্নয়ন কাজ শুরু হয়, তখনই তারা শহীদের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকার নির্মাণসামগ্রী বিক্রি করে আসছেন।

Advertisement


©  দেশবার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত